web analytics
Technology

ব্ল্যাক হোলের প্রথম ছবি প্রকাশিত হল

মহাকাশ গবেষনার আরেকটি বড় ঘটনা প্রকাশিত হল প্রথমবারের মতো ব্ল্যাক হোলের ছবি তুলতে সক্ষম হয়েছে মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। বিশেষভাবে নির্মিত ইভেন্ট হরাইজন টেলিস্কোপের মাধ্যমে ধারন করা হয় ব্ল্যাক হোল বা কৃষ্ণগহ্বরের ছবি।

মাধ্যাকর্ষণ শক্তি এতই প্রবল যে আলোর রশ্মি থেকে শুরু করে একটা ক্ষুদ্র কনাও তার হাত থেকে রক্ষা পায়না। ব্ল্যাক হোলে হোল বা গহ্বরের কথা বলা হলেও আসলে এটা ফাঁকা নয়। বিপুল পরিমাণ পদার্থ জমাট বেঁধে একটি ছোট্ট জায়গার মধ্যে রয়েছে যার কারনে মহাকর্ষণ শক্তিটা এতো জোড়ালো।

আটটি রেডিও টেলিস্কোপ নেটওয়ার্ক যা পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত এ্যান্টার্কটিকা, স্পেন ও চিলিতে বসিয়ে এই ছবি ধারন করা সম্ভব হয়।

কোন একক টেলিস্কোপের যথেষ্ঠ ক্ষমতা নেই বলে এর আগে ব্ল্যাক হোলের কোন ছবি তোলা যায়নি। পৃথিবী থেকে ব্লাক হোলের দূরত্ব প্রায় ৫০ কোটি ট্রিলিয়ন কিলোমিটার যার ভর সূর্যের চেয়েও ৬৫০ কোটি গুণ বেশি।

‘দানব’ বলে আখ্যায়িত করেছে বিজ্ঞানীরা এর আকার আয়তন দেখে। মহাকাশের ছায়াপথে যত উজ্জ্বল তারা আছে তার থেকেও উজ্জ্বলতা বেশি এই ব্ল্যাক হোলের।

দানবাকৃতির এই ব্ল্যাক হোল সমগ্র সৌরজগতের চাইতেও বহুগুণ বড় যার এক মাথা থেকে অন্য মাথার আয়তন হবে ৪ হাজার কোটি কিলোমিটার যা পৃথিবীর চাইতে ৩০ লক্ষ গুণ বড়।

যে ছবিটি প্রকাশিত হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে হোলটি থেকে ‘আগুনের চক্র’ নির্গত হচ্ছে যে ব্যাপারে অধ্যাপক ফালকে বলেছেন, সম্পূর্ণ গোলাকৃতির অন্ধকার একটি হোল থেকে আগুনের চক্রটি দেখা যাচ্ছে। উচ্চ তাপমাত্রার গ্যাসের কারণে এই আগুনের উৎপত্তি যা এর ভেতরে আটকা পড়ে আছে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close