Home Technology নতুন ফোন কেনার আগে জেনে নিন

নতুন ফোন কেনার আগে জেনে নিন

7876
0

বর্তমানে আমাদের দেশসহ সমস্তবিশ্বে এন্ড্রয়েড ফোন সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। আপনি যদি নতুন ফোন কিনতে চান এবং এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন সম্পর্কে ভাল জ্ঞান না থাকে তাহলে এই লিখাটি আপনার জন্য।

স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে যেকয়টি বিষয় মাথায় রাখতে হবে এর মধ্যে প্রধান হল ফোনের প্রসেসর, রেম, ডিসপ্লে, ডিসপ্লে প্রটেকশন এবং ব্যাটারি।

প্রসেসরঃ প্রসেসর হল একটি ফোনের প্রান। ফোন এর যাবতীয় সকল কাজ প্রসেসরে থাকে। তাই ফোন কেনার আগে প্রসেসর সম্পর্কে জানা আবশ্যক। একটি প্রেসেসর মূলত ৫ ধরনের আর্কিটেকচারে cortex A5, A7, A8, A9, A15। তবে সব আর্কিটেকচারারের মধ্যে A15 সবচেয়ে শক্তিশালী এবং A5 সবচাইতে দুর্বল। আপনি যদি বেশি গেমিং করেন তাহলে আপনার A5 আর্কিটেকচার এর প্রসেসর না নেওয়া ই ভাল। তবে আপনি যদি অল্প ইউজ করেন এবং গেইম না খেলেন তবে G5 আপনার জন্য ভাল কারন তার ব্যাটারি ব্যাকআপ ভাল হয়। প্রসেসর এর জন্য আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল তার ক্লক স্পিড। আপনার প্রসেসরের ক্লক স্পিড যত ভাল হবে আপনার প্রসেসর হবে তত শক্তিশালি। আরেকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে তা হল প্রসেসরের কোর। কোর হিসেবে প্রসেসর প্রধানত ৩ ধরনের হয় ডুয়েল কোর(২ টি), কোয়াড কোর(৪ টি), হেক্সা কোর(৬ টি) এবং অক্টা কোর(৮ টি)। আপনার ফোনের প্রসেসরে যত বেশি কোর থাকবে আপনার ফোন তত বেশি শক্তিশালি হবে।

রেম (Ram): একটি ফোনের পারফরমেন্সে রেম অনেক বড় একটি ফ্যাক্টর। আপনার ফোনের রেম আপনার ফোনের পারফরমেন্স কয়েক গুন বাড়িয়ে দিতে পারে। রেম কয়েক ধরনের হতে পারে তবে ডি ডি আর ৪ হল এই এখনকার সময়ের সবচাইতে দ্রুত রেম। যদি আপনার কাংখিত ফোনে ডি.ডি.আর ৪ জিবি রেম থাকে তাহলেতো কথায় নেই তবে রেম যেন কোন মতে ডি ডি আর ৩ এর নিচে না হয়। আর রেমের পরিমান যত বেশি হবে আপনার ফোনের পারফরমেন্স তত ভাল হবে তবে আপনার ফোনের রেম যেন কোনমতেই ১ জিবির কম না হয়।

ডিসপ্লেঃ আপনার ফোনের অন্যান্য হার্ডওয়ার যত ভাল হোক না কেন আপনার ফোনের ডিসপ্লে যদি ভাল না হয় তবে ফোন ব্যবহার করে মজা পাওয়া যায় না। তাই ভাল ফোনের জন্য অবশ্যই চাই ভাল ডিসপ্লে। এন্ড্রয়েড ফোনে বর্তমানে সবচাইতে ভাল ডিসপ্লে হল সুপার এমোলেড ডিসপ্লে। তবে আপনার ফোনের বাজেট যদি কম থাকে তাহলে সুপার এমোলেড ডিসপ্লে চাওয়া তা বোকামি হবে। কম বাজেটে এলসিডি আইপিএস ডিসপ্লে হল সবচাইতে ভাল। এছাড়া আরেকটি বিষয় দেখতে পারেন তা হল ডিসপ্লের পি.পি.আই। পি.পি.আই যত বেশি হয় একটি ডিসপ্লে দেখতে তত বেশি সুন্দর হয়।

ডিসপ্লে প্রটেকশনঃ আপনি নিশ্চয় চাইবেন না আপনার কষ্টের টাকায় কিনা মোবাইলে ভুলে হাত থেকে পড়ে ভেজ্ঞে যাক অথবা ব্যবহার করার অল্প কিছুদিন পরেই ডিসপ্লে তে দাগ পড়ুক। যদি তা না চেয়া থাকেন তবে আপনার ডিসপ্লে প্রটেকশনের দিকে খেয়াল করা উচিৎ । ফোন কিনার আগে দেখে নিন আপনার ফোনে গরিলা গ্লাসের প্রটেকশন আছে কি না। করনিং গরিলা গ্লাস ৬ হল এই সময়ের সবচাইতে ভাল এবং শক্ত গ্লাস। তবে গরিলা গ্লাস ৬ কম বাজেটের ফোনে পাওয়া যায় না তবে আপনার বাজেট কম হলেও আপনি করনিং গরিলা গ্লাস ৩ আশা করতেই পারেন।

ক্যামেরাঃ এই সেলফির যুগে আপনার ফোনের ক্যমেরা যদি ভাল না হয় তবে আপনার ফোন কিনে কি লাভ? ফোন কিনার আগে দেখেনিন আপনার ফ্রন্ট আর ব্যাক উভয় ক্যামেরা কত মেগাপিক্সেলের। ক্যামেরার মেগাপিক্সেল যত বেশি হয় আপনার ফোনের ছবি তত ভাল আসে। এছাড়াও অনেক বিষয় যেমন ক্যামেরা সেন্সর, এপারেচার অনেক কিছুই একটি ফোনের ক্যামেরাই প্রভাব ফেলে।

ব্যাটারিঃ কষ্টের টাকাই ফোন কিনলেন আর সেই ফোন যদি দিনে ২ বা ৩ বার করে চার্জ দেওয়া লাগে তাহলে ত আপনি ফোন ইউজ করার মজা টাই পেলেন না। ফোনের ব্যাটার এম এইচ বা মিলি এম্পিয়ার এককে থাকে। আপনার ফোন যত বেশি মিলি এম্পিয়ার এর হবে আপনার ফোনের ব্যাটারি তত বেশি থাকবে।

মেমরিঃ কেনার আগে দেখে নিনে আপনার ফোনে মেমরি কার্ড এর স্লট আছে কিনা। বর্তম্যানে ২ ধরনের স্লট এর মোবাইল পাওয়া যায় একটি হল শেয়ারড যেটিতে আপনার মেমরি কার্ড ব্যাবহার করতে চাইলে ১ টি সিম বিসর্জন দিতে হবে অর্থাৎ ২ টি সিম একসাথে ব্যাবহার করতে পারবেন না। এছাড়া ডেডিকেটেড স্লটের ও মোবাইল পাওয়া যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here