web analytics
Uncategorized

ঘুরে আসুন মনোমুগ্ধকর মহামায়া লেক

মহামায়া লেক চট্টগ্রামের মিরসরাই এ অবস্থিত। বলা হয়ে থাকে, এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম কৃত্রিম হৃদ। এর আয়তন প্রায় ১১ বর্গ কিলোমিটার। তবে মহামায়া কৃত্রিম লেক ভ্রমণপিপাসু পর্যটকদের রূপে ও মাধুর্যে মুগ্ধ করেছে।

মিরসরাই উপজেলার ৮ নম্বর দুর্গাপুর ইউনিয়নের ঠাকুরদিঘী বাজার থেকে দুই কিলোমিটার পূর্বে পাহাড়ের পাদদেশে মহামায়া লেক অবস্থিত।

পাহাড়ের কোলঘেঁষে আঁকাবাঁকা লেকটি অপরূপ সুন্দর। ছোট-বড় অসংখ্য পাহাড়ের মাঝখানে অবস্থিত মহামায়া লেকের অন্যতম আকর্ষণ পাহাড়ি ঝরনা এবং স্বচ্ছ পানির জলাধারের চার পাশ সবুজ চাদরে মোড়া। মনে হয়, কোনো সুনিপুণ শিল্পীর কারুকাজ।

এই লেকে কায়াকিং করারও সুযোগ রয়েছে। ঘুরে বেড়াতে পারবেন মহামায়া লেকের ৮ কিলোমিটার এলাকায়। কায়াকিং-এর জন্য ঘন্টা প্রতি খরচ হবে ৩০০ টাকা। ছাত্রদের জন্য এই খরচ ২০০ টাকা। তবে স্টুডেন্ট আইডি কার্ড দেখাতে হবে। তবে এক কায়াকে চড়া যাবে ২ জন।

সকাল ৯টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত কায়াকিং করা যায়। কায়াকে ওঠা সবার জন্য লাইফ জ্যাকেট থাকে, তাই যারা সাঁতার পারেন না তারাও কায়াকিং করতে পারবেন।

এছাড়া মহামায়া লেকে ঘুরে বেড়ানোর জন্য ইঞ্জিনচালিত বোট আছে। মাঝারি মাপের ইঞ্জিনচালিত বোটে ঘন্টা প্রতি ভাড়া পড়বে ৮০০-১০০০ টাকা এবং একসাথে ৮-১০ জন উঠতে পারবেন এই বোটে। আর বড় বোটে ঘন্টা প্রতি ভাড়া পড়বে ১২০০ থেকে ১৫০০ টাকা। এসব বোটে একসাথে ১৫-২০ জন উঠতে পারবেন।

পিকনিকের জন্য মহামায়া দারুণ একটা জায়গা। তবে এখানে এসে আপনি রান্নাবান্না করেও খেতে পারেন। তা ছাড়া অনেকেই লেকের কোলে অবস্থিত বিস্তীর্ণ ভূমিতে ফুটবল কিংবা ক্রিকেট খেলায় মেতে ওঠে।

মহামায়া লেকে প্রবেশের জন্য প্রতিজন ১০ টাকা দিয়ে টিকেট করতে হবে।

এখানে ক্যাম্পিং করার সুযোগও রয়েছে। সপ্তাহের যেকোনো দিন রাতের বেলা ক্যাম্পিং করা যাবে। সময় সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরদিন সকাল ৭টা পর্যন্ত। তবে এর মূল্য জনপ্রতি ৬০০ টাকা।

মহামায়া লেকে ক্যাম্পিং ও কায়াকিং এর প্যাকেজের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন ০১৮১৬১১০৩০০, ০১৭১৯৩৯৯৯১৫ বা ০১৬১৬৭৯৬৯৬৯ নম্বরে। তবে ক্যাম্পিংয়ে মেয়েদের থাকার অনুমতি নেই।

কিভাবে যাওয়া যায়:

ঢাকার কমলাপুর থেকে বিআরটিসির বাসে আসতে পারেন। অথবা সায়েদাবাদ থেকে এসি, নন-এসি বিভিন্ন বাস সার্ভিস রয়েছে। তাতে করে সরাসরি চলে আসুন চট্টগ্রামের মিরসরাই। সেখান থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশা কিংবা হিউম্যান হলারে করে আসতে পারবেন লেকে। অটোরিকশায় ভাড়া পড়বে একশো টাকা এবং এছাড়া হিউম্যান হলারে ভাড়া পড়বে ১০ টাকা।

ট্রেনে ঢাকা-চট্টগ্রামের রুট ট্রেনে বা সিলেট থেকে সড়ক ও রেলপথে চট্টগ্রাম আসা যায়। চট্টগ্রাম নগরীর মাদারবাড়ি থেকে সরাসরি বাস সার্ভিসে করে চলে যেতে পারেন মিরসরাইয়ের মহামায়া লেকে। কিংবা অলংকার সিটি গেট থেকে যেকোনো লোকাল বাসেও যেতে পারবেন মিরসরাই। তবে সময় লাগবে ১ ঘন্টা। ভাড়া ৪০ থেকে ৭০ টাকা।

এছাড়া, ট্রেনে আসলে ফেনী রেলওয়ে স্টেশন নামতে পারেন। তারপর স্টেশন থেকে ইজিবাইকে করে মহিপাল বাসস্ট্যান্ড তারপর চট্টগ্রামগামী যেকোন বাসে ঠাকুরদীঘি বাজার আসতে ভাড়া-৩০/৪০ টাকা।


Related Articles

Back to top button
Close
Close